বাংলা

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম – কিভাবে লিখবো? – ওয়ার্ড / পিডিএফ ফাইল সহ

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম – কিভাবে লিখবো? – ওয়ার্ড / পিডিএফ ফাইল সহ

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম – কিভাবে লিখবো? – ওয়ার্ড / পিডিএফ ফাইল সহ আমাদের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে। আজকের বিষয় হল কিভাবে একটি প্রশংসাপত্র লিখতে হয়। এবং কিভাবে আপনি আমাদের তৈরি শংসাপত্র ব্যবহার করতে পারেন? আপনি চাইলে আমাদের ওয়েবসাইট থেকে কপি করে আপনার কম্পিউটারে চালাতে পারেন। আর যদি খুব বেশি ঝামেলা মনে হয় তাহলে নিচের সার্টিফিকেট নমুনা পিডিএফ ফাইলটি আপনার কম্পিউটার বা মোবাইল ফোনে ডাউনলোড করে নিতে পারেন। এবং হলফনামা নমুনার মাধ্যমে ব্যবহার করতে পারেন আপনি আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী ব্যবহার করতে পারেন। যদি আপনি নিজে এটি তৈরি করতে না পারেন, তাহলে আপনি একটি কম্পিউটার অপারেটরের সাহায্যে আমাদের উদাহরণ তৈরি করতে পারেন। একটি সঠিক এবং সঠিক হলফনামা প্রস্তুত করার জন্য নীচে কিছু পরামর্শ দেওয়া হল।

হলফনামা বা সার্টিফিকেট কি?

হলফনামা হল এক ধরনের শংসাপত্র। একটি প্রত্যয়ন একটি নথি যা একজন ব্যক্তির নির্দিষ্ট বৈশিষ্ট্যগুলিকে প্রমাণ করে। প্রত্যয় শব্দের আভিধানিক অর্থ বিশ্বাস। অর্থাৎ, আপনার ব্যক্তিগত বৈশিষ্ট্যের প্রত্যয়নকারী একজন বিশিষ্ট ব্যক্তি কর্তৃক প্রদত্ত চিঠিটি মূলত একটি প্রত্যয়নপত্র।

উদাহরণ স্বরূপ, আপনার এলাকার চেয়ারম্যান আপনার চরিত্রের প্রত্যয়ন করে জারি করা চিঠিটি একটি প্রত্যয়নপত্র। এবং আপনার ছাত্রজীবনে আপনার ছাত্রত্ব এবং চরিত্রের সত্যায়িত স্কুল থেকে আপনি যে চিঠিটি প্রদান করেন তাও একটি সত্যায়িত চিঠি। অথবা আপনি যে কোম্পানির জন্য কাজ করেন তার কাছ থেকে প্রত্যয়িত একটি চিঠি আপনার যোগ্যতা বা চরিত্রকে প্রমাণ করে। তাই সংক্ষেপে বলতে গেলে, কোনো বিশিষ্ট ব্যক্তি কর্তৃক কোনো ব্যক্তির বিশেষ বৈশিষ্ট্যকে প্রত্যয়িত বা নিশ্চিত করার জন্য যে সার্টিফিকেট প্রদান করা হয় তা মূলত একটি সার্টিফিকেট।

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম – কিভাবে লিখবো?

আমরা সময়ে সময়ে বিভিন্ন কাজের উদ্দেশ্যে হলফনামা লিখি। হলফনামা লেখার একটা নির্দিষ্ট নিয়ম আছে। তাই সেই নিয়ম মেনে হলফনামা লিখতে হবে নতুবা আমাদের হলফনামা গ্রহণ করা হবে না। হলফনামা লেখার সময় আপনাকে অবশ্যই নিম্নলিখিত বিষয়গুলি মনে রাখতে হবে। তাই এখন নিচের নিয়মগুলো মনোযোগ সহকারে পড়ুন।

  • সার্টিফিকেট সর্বদা একটি নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠান, ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের সাধারণ প্যাডে প্রিন্ট বা লিখতে হবে।
  • চিঠির শিরোনামে অবশ্যই “সনদপত্র” থাকতে হবে।
  • সার্টিফিকেট যাকে ইস্যু করা হয়েছে তার নাম ও পূর্ণ ঠিকানা সার্টিফিকেটে উল্লেখ করতে হবে।
  • চিঠির মূল অংশটি দুটি অংশে বিভক্ত, যার মাধ্যমে চিঠির অর্থ প্রকাশ করা হয়। অর্থাৎ, যে কেউ পূর্ণ বোঝার জন্য চিঠিটি পড়তে পারেন।
  • চিঠিতে তথ্য প্রদানকারী ব্যক্তির নাম এবং স্বাক্ষর থাকতে হবে।
  • প্রত্যয়নকারী ব্যক্তি, সংস্থা বা প্রতিষ্ঠানকে অবশ্যই প্রতিষ্ঠানের প্রধানের সিল এবং স্বাক্ষর বহন করতে হবে।

কিছু নমুনা হলফনামা

বাংলা ও ইংরেজি যে ভাষায়ই সার্টিফিকেট লেখা থাকুক, শুধু ভাষা পরিবর্তন হবে। অন্য সব নিয়ম একই থাকবে। তাহলে বলা যায় বাংলা ও ইংরেজি সার্টিফিকেট লেখার নিয়ম একই। অর্থাৎ ফরম্যাট একই থাকবে। এ পর্যন্ত আমরা হলফনামা লেখার নিয়ম সম্পর্কে জেনেছি। এখন কয়েকটি উদাহরণ আপনাকে পুরো বিষয় সম্পর্কে পরিষ্কার ধারণা দেবে। প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম – কিভাবে লিখবো?? এই নিবন্ধে আলোচনা করা হয়.

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম
প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম

সার্টিফিকেশন জন্য প্রয়োজনীয়তা কি?

এসএসসি পাস করার পর কলেজে ভর্তির সময় স্কুল সার্টিফিকেট লাগে। এছাড়াও, অনেক সময় এক স্কুল থেকে অন্য স্কুলে ভর্তির জন্য আগের স্কুলের সার্টিফিকেট লাগে। একটি স্কুল সার্টিফিকেট মূলত সেই স্কুলে অধ্যয়নরত ছাত্রের প্রমাণ। এসএসসি পাসের পর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য কলেজ সার্টিফিকেট প্রয়োজন। এছাড়াও, অনেক সময় কলেজ পরিবর্তন করার সময় পূর্ববর্তী কলেজের একটি সার্টিফিকেট প্রয়োজন হয়।

কর্মসংস্থান সার্টিফিকেট

আমাদের অনেক কাজের জন্য সার্টিফিকেশন প্রয়োজন। শংসাপত্র এবং প্রশংসাপত্র স্কুল থেকে প্রাপ্ত করা যেতে পারে, এবং সার্টিফিকেট এছাড়াও যে কোনো ব্যক্তির কাছ থেকে প্রাপ্ত করা যেতে পারে. স্কুল এবং কলেজ থেকে সার্টিফিকেট এবং প্রশংসাপত্র শুধুমাত্র শিক্ষাগত উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা হয়. আবার যখন ব্যক্তির কাছ থেকে শংসাপত্রটি প্রাপ্ত করা হয় তখন প্রয়োজনে যে কোনও উদ্দেশ্যে ব্যবহার করা যেতে পারে।

শেষ কথা

প্রত্যয়ন পত্র লেখার নিয়ম – কিভাবে লিখবো? অবশেষে এই নিবন্ধে আলোচনা করা হয়েছে। আপনি যদি এই বিষয়ে আরও জানতে চান তাহলে আমাদের অনুসরণ করুন যাতে আমরা আপনাকে অদূর ভবিষ্যতে আরও সাহায্য করতে পারি। এখন এই নিবন্ধটি তাদের জন্য যারা জানতে চান কিভাবে একটি প্রত্যয়নপত্র এবং সুপারিশের চিঠি তৈরি করতে হয়। এই টেক্সটে সার্টিফিকেট এবং প্রশংসাপত্রের তিনটি ভিন্ন ফরম্যাট দেওয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button