Assignment

Class 12 HSC Vocational Bangla Assignment Answer

XII Class HSC Voc Bangla Assignment For Final Exam

HSC Vocational Bangla Assignment Answer, HSC Voc Assignment Answer For Bangla, xi, xii class final exam assignment, Class 11, 12 assignment, Assignment 1st upload solution, HSC Vocational Solution 2021.

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বাের্ডের অধীন এইচএসসি ভকেশনাল শিক্ষাক্রমের একাদশ শ্রেণির বাের্ড ফাইনাল বাংলা পরীক্ষা-২০২০ এর ফলাফল এ্যাসাইনমেন্টের মাধ্যমে প্রক্রিয়াকরণের জন্য নির্ধারিত কাজ ও মূল্যায়ন নির্দেশনা:

শিক্ষাক্রম: এইচএসসি (ভকেশনাল) বিষয়: বাংলা-১ (১৮১১) তত্ত্বীয় চূড়ান্ত মূল্যায়নের পূর্ণ নম্বর:৬০

এ্যাসাইনমেন্টের ক্রম: ভােকেশনাল ০১ (ক)

অধ্যায় ও বিষয়বস্তুর শিরােনাম

গদ্য : আমার পথ

পদ্য : আমি কিংবদন্তির কথা বলছি

উপন্যাস : লালসালু

এ্যাসাইনমেন্ট নির্ধারিত কাজ

১। একদিকে স্বার্থ, আরেক দিকে প্রেম, একদিকে প্রবৃত্তি, আরেক দিকে নিবৃত্তি। সেই দোলায়মান অবস্থায় এই দ্বন্দ্বের মাঝখানেই যা সৌন্দর্যকে ফুটিয়ে তুলে, যা ঐক্যের আদর্শ রক্ষা করে, তাকেই বলি মঙ্গল।

(ক) লেখক কাকে সালাম ও নমস্কার জানিয়েছেন?

(খ) স্পষ্ট কথা বলায় একটা অবিনয় থাকে কেন?

(গ) উদ্দীপকে ‘আমার পথ’ প্রবন্ধের সম্পূর্ণ ভাব প্রকাশ প্রকাশ করে কী? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) যা ঐক্যের আদর্শ রক্ষা করে, তাকেই বলি মঙ্গল”- উক্তিটি ‘আমার পথ’ প্রবন্ধের আলােকে বিশ্লেষণ কর।

২। কবিরা গােলাপের মত সুন্দর-সুন্দর কথা বলেন, চাঁদের মত স্বপ্ন দেখেন। কবিরা শব্দ দিয়ে লিখেন নানান রকমের কবিতা। কখনাে তারা খুব হাসির কথা বলেন। কখনাে বলেন কান্নার কথা।

(ক) ‘কিংবদন্তি শব্দের অর্থ কী?

খ) “আমরা কি তাঁর মত কবিতার কথা বলতে পারবাে” চরণটির অর্থ ব্যাখ্যা কর।

(গ) উদ্দীপকটি “আমি কিংবদন্তির কথা বলছি” কবিতার কোন্ বিষয়টির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ? ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) “আমি কিংবদন্তির কথা বলছি” কবিতার অন্তর্নিহিত তাৎপর্য উদ্দীপকে প্রতিফলিত হয়েছে।’- মন্তব্যটির যথার্থতা প্রমাণ কর।

৩। লালসালু’ কু-সংস্কারাচ্ছন্ন ধর্মবােধের প্রতীক, অন্ধ ধর্মাচ্ছন্নতার প্রতীক। তারপরও অসহায় দুর্বল মানুষের মানসিক সান্ত্বনার শেষ আশ্রয়স্থল হল মাজার। তাই ভন্ড প্রতারক ধর্মব্যবসায়ীরা এ সংস্কৃতিকে টিকিয়ে রেখেছে। লালসালুর দৌরাত্ম্যে শােষিত ও নিঃস্ব হচ্ছে সরল অন্ধবিশ্বাসী সাধারণ মানুষ। কেননা তাদের সচেতনতার উৎস ঢাকা পড়ে আছে লালসালুর অলৌকিক শক্তির কাছে।

(ক) ধলামিয়া কেমন ধরনের মানুষ ছিল?

(খ) মজিদের মন ক’দিন ধরে থম থম করে কেন?

(গ) উদ্দীপকের সাথে ‘লালসালু উপন্যাসের সাদৃশ্য ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) লালসালু উপন্যাসের মূলভাব উদ্দীপকে প্রতিফলিত হয়েছে। এ বিষয়ে তােমার মতামত বিশ্লেষণ কর।

এ্যাসাইনমেন্টের ক্রম: ভােকেশনাল ০১ (খ)

অধ্যায় ও বিষয়বস্তুর শিরােনাম

গদ্য : জীবন ও বৃক্ষ

পদ্য : বিভীষণের প্রতি মেঘনাদ

ব্যাকরণ

এ্যাসাইনমেন্ট/নির্ধারিত কাজ

০১। জীবন ও বৃক্ষ একসুত্রে গাঁথা। বৃক্ষের কাছ থেকে মানবজীবনের অনেক শিক্ষা রয়েছে। “জীবন ও বক্ষ পড়ি। অত্যন্ত জীবন ঘনিষ্ট। মানবজীবনের সত্যিকার আদর্শ কী হওয়া উচিৎ তা এখানে সুন্দর-সাবলীলভাবে ফুটে উঠেছে। প্রবন্ধটিতে জীবনের অনিবার্য ও দুর্দান্ত সত্যকে এক অনুপম শিল্পরূপ প্রদান করা হয়েছে ।

(ক) “জীবন ও বৃক্ষ’ প্রবন্ধটি কোন গ্রন্থ থেকে নেয়া হয়েছে?

(খ) প্রাবন্ধিক বার বার বৃক্ষের দিকে তাকাতে বলেছেন কেন?

(গ) বৃক্ষের কাছ থেকে মানবজীবনের কী কী শিক্ষা রয়েছে? এ বিষয়ে তােমার অভিজ্ঞতা বর্ণনা কর।

(ঘ) বৃক্ষ ও জীবন একসূত্রে গাঁথা।’ উক্তিটি ‘জীবন ও বৃক্ষ’ প্রবন্ধের আলােকে তােমার মতামত ব্যাখ্যা কর।

২। যুদ্ধ সবসময় অনভিপ্রেত। তবুও যুদ্ধের দাবানলে বিশ্ব দাউ দাউ করে জ্বলে ওঠে। মুলত ক্ষমতার দম্ভ থেকে যুদ্ধের সূত্রপাত। বৃহৎ রাষ্ট্রগুলাে শক্তির দাপটে ছােট ছােট রাষ্ট্রের উপর আধিপত্য বিস্তারে হিংস্র খেলায় মেতে ওঠে। স্বার্থবুদ্ধি যখন প্রবল হয়ে ওঠে, যুদ্ধ তখন মাথাচাড়া দিয়ে ওঠে। সভ্যতার বিকাশলগ্ন থেকেই হিংসা বিদ্বেষের এই মর্মান্তিক ধারা বয়ে চলেছে।

(ক) মেঘনাদ কে?

(খ) মেঘনাদ কেন বিভীষণকে তিরস্কার করেছিলেন?

(গ) উদ্দীপকটি “বিভীষণের প্রতি মেঘনাদ’ কবিতার কোন বিষয়টির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ ব্যাখ্যা কর।

(ঘ) “যুদ্ধে প্রতিপক্ষের তুলনায় স্বপক্ষের বিশ্বাসঘাতকরা বেশি ভয়ঙ্কর”- উদ্দীপক ও “বিভীষণের প্রতি মেঘনাদ” কবিতার আলােকে উক্তিটির যথার্থতা নিরূপন কর।

৩। (ক) “উপসর্গের অর্থবাচকতা নেই, কিন্তু অর্থদ্যোতকতা আছে”-উদাহরণসহ ব্যাখ্যা কর।

উত্তর

উক্তিটি বিশ্লেষণ: যেসব অব্যয় মূল শব্দ বা ধাতুর সঙ্গে মিলে বা ধাতুকে অবলম্বন করে ওই ধাতুর নানা অর্থের সৃষ্টি করে, তাদের উপসর্গ বলা হয়। বাংলা ভাষায় ব্যবহৃত উপসর্গগুলাের কোন অর্থবাচকতা নেই, শুধু মূল শব্দ বা ধাতুর আগে এরা ব্যবহূত হলেই এদের অর্থদ্যোতকতা শক্তি দৃষ্ট হয়। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়: ‘অনা’ একটি উপসর্গ। এর নিজের কোনাে অর্থ নেই। কিন্তু ‘আবাদ’ শব্দের আগে ‘অনা’ শব্দটি ব্যবহৃত হয়ে অনাবাদ’, অর্থাত্ আবাদ নেই যার’ অর্থে ব্যবহূত হয়েছে। তেমনি এটা আচারের পূর্বে ব্যবহূত হয়ে অনাচার (আচার বহির্ভূত অর্থে) এবং সৃষ্টির আগে ব্যবহূত হয়ে অনাসৃষ্টি (অদ্ভুত অর্থে)। এরূপে ভিন্ন ভিন্ন অর্থদ্যোতকতা সৃষ্টি করেছে। সুতরাং, দেখা যাচ্ছে যে উপসর্গসমূহের নিজস্ব কোনাে বিশেষ অর্থবাচকতা নেই, কিন্তু অন্য শব্দের আগে যুক্ত হলেই এদের অর্থদ্যোতকতা বা সংশ্লিষ্ট শব্দের নতুন অর্থ সৃজনের ক্ষমতা সৃষ্টি হয়।

(খ) কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে কম্পিউটার অপারেটর পদে চাকুরির জন্য একটি আবেদনপত্র লেখ।

Answer

কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরে কম্পিউটার অপারেটর পদে চাকুরির জন্য একটি আবেদনপত্র

মূল্যায়ন নির্দেশক

  • সৃজনশীল প্রশ্নোত্তর মূল্যায়ন নির্দেশনা অনুসরণ
  • বিষয়বস্তুর সঠিকতা
  • সঠিক সিদ্ধান্ত
  • নিজস্বতা / স্বকীয়তা। সৃজনশীলতা

Join-Group

HSC Vocational Bangla Assignment

HSC Vocational Bangla Assignment 1
HSC Vocational Bangla Assignment 2

Asiful Alam

Myself Asif from Rajshahi, Bangladesh. I am a freelancer blogger. I have some blogs related to BD education and Result like https://newresultbd.com, https://studiesbd.com. In addition, I am a part time Web Developer, Graphics Designer & Video Editor.

Related Articles

One Comment

  1. গ) উদ্দীপকটি “আমি কিংবদন্তির কথা বলছি” কবিতার কোন্ বিষয়টির সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ? ব্যাখ্যা কর
    (ঘ) “আমি কিংবদন্তির কথা বলছি” কবিতার অন্তর্নিহিত তাৎপর্য উদ্দীপকে প্রতিফলিত হয়েছে।’_

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button